ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করার উপায় | ইউটিউব শর্টস থেকে টাকা আয়

ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করার উপায়

ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করার উপায়ঃ অবশেষে ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন নিয়ম চালু করলো ইউটিউব। এখন থেকে ইউটিউব ভিডিও ক্রিয়েটরগণ ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করতে পারবেন। কিভাবে ইনকাম করবেন, কিভাবে মনিটাইজেশন করবেন, শর্তাবলী কি কি সেই সম্পর্কে সবকিছু থাকছে আজকের লেখায়। চলুন দেরি না করে শুরু করা যায়।

ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করা সম্ভব

হ্যা, ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করা অবশ্যই সম্ভব। কি ভাবে ইনকাম করবেন, কি কি শর্ত রয়েছে সবকিছু থাকছে আজকের লেখায়।

২০২৩ সালে ইউটিউব যে ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন নিয়ম নিয়ে এসেছে তার আগে সাধারন উপায়ে ইউটিউব থেকে আয়ের সুযোগ ছিলো। ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন ফান্ড থেকে ১০০ মিলিয়নের বেশি কন্টেন্ট ক্রিয়েটরকে অর্থ প্রদান করা হতো।

অবশেষে ১লা ফেব্রুয়ারি ২০২৩ সাল থেকে অফিসিয়ালি ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন চালু করা হয়েছে। এর ফলে ইউটিউব ফান্ড থেকে আর কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের অর্থ প্রদান করা লাগবে না। মনিটাইজেশন এর মাধ্যমে Youtube Shorts থেকে Google Ads এর মাধ্যমে অর্থ শেয়ারিং করে থাকবে। যার ফলে Youtube এর আর নিজস্ব ফান্ডের প্রয়োজন হবে না।

আরও পড়ুন – সেরা অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট

বর্তমান ইউটিউব মনিটাইজেশন মডিউল সমূহ

ইউটিউব মনিটাইজেশন এর ক্ষেত্রে কি কি মডিউল বা নিয়ম রয়েছে সেইগুলা নিচে দেখানো হলো।

  • ওয়াচ পেজ মনিটাইজেশনঃ ওয়াচ পেজ মনিটাইজেশন এর মাধ্যমে Long-Form, live-streaming, Premium Content এ অ্যাডস দেখানো হবে ও সেই অ্যাডস থেকে রেভিনিউ শেয়ার করা হবে।
  • শর্টও মনিটাইজেশনঃ ২০২৩ সালের নতুন নিয়ম অনুযায়ী ইউটিউব শর্টসে মনিটাইজেশন অন চালু হওয়ার মাধ্যমে ইউটিউব শর্টস থেকে রেভিনিউ শেয়ার করা হবে।
  • কমার্স প্রোডাক্ট এডেন্ডামঃ শুনতে কিছুটা অদ্ভুত ও জটিল মনে হলেও এই মনিটাইজেশন এর মাধ্যমে মেম্বারশিপ, সুপার চ্যাট, সুপার থ্যাংকস গুলোতে মনিটাইজেশন অন করে রেভিনিউ শেয়ার করার হবে।

উপরে যে কয়টি ইউনটিউব মনিটাইজেশন অপশন বা মডিউল রয়েছে সবগুলো চালু করে রাখলে ইউটিউব থেকে বেশি ইনকাম করার সুযোগ রয়েছে।

আরও পড়ুন – ফ্রিল্যান্সিং করে আয়

ইউটিউব শর্টস মনিটাইজেশন নিয়ম ও শর্তাবলী

ইউটিউব ফুল ভিডিও কনটেন্ট মনিটাইজেশন অন করার জন্য যেমন বেশ কিছু শর্ত পালন করতে হয় তেমনি শর্টস মনিটাইজেশন চালু করতে হলেও বেশ কিছু শর্ত মেনে চলতে হয়। একজন শর্টস ভিডিও কন্টেন্ট ক্রিয়েটরের মনিটাইজেন চালু করার জন্য দুইটি শর্ত পালন করতে হবে। দুইটি থেকে একটি শর্ত পুরন হলেই সে তার চ্যানেলকে মনিটাইজেশন করতে পারবেন।

  • শর্ট ভিডিও এর জন্যঃ গত ৯০ দিনে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার ও ১০ মিলিয়ন ভ্যালিড পাবলিক মর্টস ভিউস।
  • সাধারন ভিডিওর জন্যঃ গত ১২ মাসে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার ও ৪০০০ ঘন্টা পাবলিক ওয়াচ টাইম। এই ক্ষেত্রে শর্টস থেকে আসা কোন ভিউস কাউন্ট হবে না।

উপরের শর্তগুলো পুরন হওয়ার পরে যখন আপনার ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন করার জন্য আবেদন করা হবে তখন ইউটিউব কর্তৃপক্ষ মনিটাইজেশন পরিসি মেনে চলে সবকিছু হয়েছি কিনা চেক করবে। তারপর যদি আপনার সবকিছু ঠিক থাকে তাহলে মনিটাইজেশন দেওয়া হবে। মনে রাখবেন, কোন চ্যানেল মনিটাইজেশন চালু করতে হলে অবশ্যই নিজের ভিডিও আপলোড করতে হবে।

আমাদের মাঝে অনেকে আছেন যারা মুভি, নাটক বা অন্য কোন কপিরাইট কন্টেন্ট চ্যানেলে আপলোড দিয়ে থাকে। এই ধরনের চ্যানেল কখনও মনিটাইজেশন চালু হয় না। তাছাড়া অনেকে অন্য প্লাটফর্ম থেকে ভিডিও ডাউনলোড করে নিয়ে এসে চ্যানেলে আপলোড করে থাকে। এই চ্যানেলগুলো ও মনিটাইজেশন চালু হবে না।

ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করার উপায়

ইউটিউব এর নতুন মনিটাইজেশন নিয়ম অনুযায়ী এখন থেকে ইউটিউব শর্টস ক্রীয়েটরদের মনিটাইজেশন চালু হওয়ার পর থেকে রেভিনিউ দেওয়া শুরু হবে। এই শর্টস থেকে ইনকামের কিছু অংশ যাবে কন্টেন্ট ক্রিয়েটর বা ইউটিউবের কাছে ও কিছু অংশ যাবে মিউজিক লাইসেন্স করানো সংস্থার কাছে। মনে রাখবেন, ইউটিউব শর্টস এ আপনি যে ধরনের মিউজিক ব্যবহার করেন না কেনো, আপনি মোট ৪৫% রেভিনিউ পাবেন।

ইউটিউব শর্টস থেকে টাকা কত আয় করা যায়?

১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ সালে ইউটিউব শর্টস এ মনিটাইজেশন এনাবল সিস্টেম চালু করেছে। তাই এখনও কেও ইউটিউব শর্টস থেকে কত টাকা ইনকাম করা যায় সেই সম্পর্কে কেও জানেন না। যদি আপনার মনে ১০০০ ইউটিউব শর্টস থেকে কত ইনকাম হয় এমন প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে কিছু দিন আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে। তাহলে আপনি জানতে পারবেন ১০০০ ভিউতে গড়ে কত টাকা ইনকাম হয়।

আমাদের মধ্যে অনেকে বলেন, ইউটিউব শর্টস এর ১০০০ ভিউজে .04 সেন্ট ইনকাম হয়। কিন্তু এটির কোন সত্যতা পাওয়া যায় নি। তাই সঠিক সত্যতা যাচাই করার জন্য আপনাকে কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে।

তবে এখন থেকে সকলে মনে করতে পারবেন, আপনার শর্টসে যত বেশি ভিউস হবে তত বেশি ইনকাম হবে।

কেনো ইউটিউব শর্টস চ্যানেল মনিটাইজেশন চালু হচ্ছে না

আপনার চ্যানেলে যথেষ্ট পরিমান সাবস্ক্রাইবার ও ভিউজ থাকার পরেও যদি আপনার চ্যানেল মনিটাইজেশন চালু না হয় তাহলে নিশ্চয়ই আপনি যে কন্টেন্ট বা শর্টস আপলোড দিয়েছেন সেই গুলো ইউটিউব পলিসি বিরুদ্ধ। সেইক্ষেত্রে আপনার চ্যানেলকে মনিটাইজেশনের জন্য ডিসকোয়ালিফাই করা হয়েছে।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ধরুন আপনি মুভি, টিবি শো ক্লিপ বা কপিরাইট কন্টেন্ট নিয়ে কাজ করছেন। সেইক্ষেত্রে আপনি কখনও আপনার ইউটিউব শর্টস চ্যানেলকে মনিটাইজেশন অন করতে পারবেন না।

সর্বশেষ কথাঃ

একজন কন্টেন্ট ক্রিয়েটর সবসময় তার মেধা দিয়ে ইনকাম করতে চান। আর তাই তাকে সবসময় সঠিক পথটিকে বেছে নিতে হবে। আপনি যদি সঠিক পথে চলেন তাহলে আজ না হলেও কাল আপনার সুসময় আসবেই। তাই সকলে নিয়ম মেনে সঠিক পথে কাজ করুন। সাকসেস আজবেই।

You May Also Like

About the Author: banglait24

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *